ব্লগিংয়ে সফল হবার ৭ উপায় – গল্পচ্ছলে ব্লগিং

Sending
User Review
4.75 (4 votes)

আপনি কি কখনও ভেবে দেখেছেন? বড় বড় ব্লগাররা কী করে, যা আপনি করেন না? বেশ, পাঠকদের আপনার ব্লগে বিজড়িত করতে সবচেয়ে কার্যকর উপায়গুলোর একটি “গল্পের মাধ্যমে কীভাবে ব্লগিং করতে হয়” শিখতে পারেন।

আপনি ব্লগে আর্টিকেল লিখতে লিখতে ক্লান্ত, অথচ কেউ আপনার আর্টিকেল পড়ছে না!!! তাই যদি হয়, তাহলে আপনি নিচের ৭টি টিপস অনুসরণ করতে পারেন; আশা করি পাঠক আপনার ব্লগ পড়া শুরু করবে এবং শেয়ারও করবে।

ব্লগিং টিপস ১: পাঠকের সাথে আলাপ-চারিতার মত করে ব্লগ লিখুন। ‘আপনি’ এবং ‘আমি’ সম্বোধন করে ব্লগ লেখার চেষ্টা করুন। এতে পাঠকের মনে হবে আপনি তাকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলছেন, যা পাঠককে আপনার ব্লগে খুব বেশি যুক্ত করবে।

ব্লগিং টিপস ২: আপনার ব্লগের অনুচ্ছেদগুলো কখনই ৫-৬ লাইনের বেশি হওয়া উচিত নয়। বড় বড় অনুচ্ছেদগুলো দেখতে একঘেয়ে লাগে এবং পাঠকদের পড়তে নিরুৎসাহিত করে।

ব্লগিং টিপস ৩: আপনার ব্লগে সাব-হেডিং ব্যবহার করুন। সাব-হেডিং আপনার কন্টেন্টের সারমর্ম বের করতে সাহায্য করে। কীভাবে সাব-হেডিং দিয়ে গল্প বলতে হয়, তা বিখ্যাত ব্লগাররা খুব ভালো পারেন। এটা পাঠকদের আপনার ব্লগে আকৃষ্ট করে আরও বেশি যুক্ত করে।

ব্লগিং টিপস ৪: সবসময় ব্লগের শেষে উপসংহার লিখতে চেষ্টা করুন। ইপসংহার থাকলে পাঠক বুঝতে পারবে আপনার ব্লগটি কী সম্পর্কে। অনেক পাঠকই স্ক্রল ডাউন করে নিচে যায় এবং উপসংহার আগে পড়ে; এরপর বাকি ব্লগ পড়ে। তাই ব্লগের শেষে একটি আকর্ষণীয় উপসংহার রাখা চাই।

ব্লগিং টিপস ৫: সঠিক তথ্য ও পরিসংখ্যান দিন। আপনার ব্লগে কোন তথ্য বা পরিসংখ্যান দেয়ার আগে, ঐ তথ্য বা পরিসংখ্যান সত্য কিনা জেনে নিন। তা না করলে আপনি বিশ্বাসযোগ্যতা তৈরি করতে পারবেন না। যার অর্থ হচ্ছে পাঠকরা আপনাকে বিশ্বাস করে না।

ব্লগিং টিপস ৬: আপনার ব্লগে পরিমিত ও প্রয়োজনীয় ছবি ব্যবহার করুন। জনপ্রিয় ব্লগাররা জানে যে, একটি ছবি হাজারটা কথা বলে। তাই আপনার ব্লগে এখনই ছবি ব্যবহার করা শুরু করুন।

ব্লগিং টিপস ৭: প্রয়োজনীয় বিষয় নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ কন্টেন্ট লিখুন। যদি পাঠক আপনার সাইট থেকে ভালো কিছু শেখে বা জানে, তাহলে তারা আপনার সাইটে বারবার ফিরে আসবে। কিন্তু আপনি যদি অযাচিত বিষয় নিয়ে বা মূল্যহীন কন্টেন্ট লিখেন, তাহলে পাঠক আপনার সাইট থেকে বাউন্স করবে এবং কখনও ফিরে আসবে না।

ধন্যবাদ সবাইকে ধৈর্য ধরে আমার আজকের ব্লগ “গল্পের মাধ্যমে কীভাবে ব্লগিং করতে হয়” পড়ার জন্য। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। আমরা বিশ্বাস করি “শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং”

Facebook Comments

Related posts

Leave a Comment